বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

তাইওয়ানের মধ্যরেখা অতিক্রম করেছে চীনের ৪৭টি যুদ্ধ বিমান

বিজ্ঞাপন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ॥ গত ২৪ ঘণ্টায় এই দ্বীপ ভূখণ্ডটির দিকে ৭১টি যুদ্ধবিমান এবং সাতটি জাহাজ পাঠিয়েছে এশিয়ার পরাশক্তি এই দেশটি। তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সোমবার (২৬ ডিসেম্বর) এই তথ্য জানায়।

তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় দাবি করেছে, মহড়ায় অংশ নিতে তাইওয়ান প্রণালীর আশপাশে সাতটি জাহাজও পাঠায় বেইজিং।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বিবৃতিতে আরও জানিয়েছে, রবিবার সকাল ৬টা থেকে পরদিন সোমবার (২৬ ডিসেম্বর) সকাল ৬টার মধ্যে ৪৭টি চীনা বিমান তাইওয়ান প্রণালীর মধ্যরেখা অতিক্রম করে। কোনও ধরনের নির্দেশনা ছাড়াই বিমান প্রবেশ করেছে বলে অভিযোগ স্বায়ত্ত্বশাসিত দ্বীপটির। বিমানের মধ্যে ছিল ১৮টি জে-১৬ যুদ্ধবিমান, ১১টি জে-১ যুদ্ধবিমান, ছয়টি সু-৩০ এবং ড্রোন।

এমন পরিস্থিতিতে চীনা যুদ্ধবিমান তাইওয়ানের আকাশসীমার কাছাকাছি চলে আসলে গতিপথ অনুসরণ করে তাইপের সামরিক বাহিনী। তার আগে তাইওয়ানের চারপাশে একটি সামরিক মহড়ার ঘোষণা দেন চীনা সেনাবাহিনীর পূর্বাঞ্চলী কমান্ডের মুখপাত্র শি ই।

তাইওয়ানকে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের সমর্থনের প্রেক্ষিতেই দ্বীপটিকে কেন্দ্র করে মাঝেমধ্যে মহড়া চালিয়ে নিজেদের শক্তি প্রদর্শন করে আসছে চীন। গত আগস্টে তাইওয়ানে রাজধানী তাইপেতে মার্কিন স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির সফরের প্রতিবাদে বড় ধরনের সামরিক মহড়া চালায় চীনা সামরিক বাহিনী। এতে অঞ্চলটিতে যুদ্ধ পরিস্থিতি তৈরি হয়।

বিজ্ঞাপন

তাইওয়ানকে নিজেদের বিচ্ছিন্ন একটি দ্বীপ হিসেবে বিবেচনা করে বেইজিং। এমনকি শিগগিরই দ্বীপটিকে চীনের মূল ভূখণ্ডের সঙ্গে একত্রীকরণের ঘোষণা দেন চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। যদিও তাইওয়ান সরকার নিজেদের স্বায়ত্বশাসিত একটি দ্বীপ হিসেবে দাবি করে আসছে।

বিজ্ঞাপন

প্রসঙ্গত, ১৯৪৯ সালে চীনে কমিউনিস্টরা ক্ষমতা দখল করার পর তাইওয়ান দেশটির মূল ভূখণ্ড থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। যদিও তাইওয়ানকে বরাবরই নিজেদের একটি প্রদেশ বলে মনে করে থাকে বেইজিং। এরপর থেকে তাইওয়ান নিজস্ব সরকারের মাধ্যমে পরিচালিত হয়ে আসছে।

বিজ্ঞাপন

আরইউ/

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন
আরো দেখুন
বিজ্ঞাপন

সম্পর্কিত খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিজ্ঞাপন
Back to top button