বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

নতুন বই প্রকাশে লেখক ও প্রকাশকদের অনীহা

বিজ্ঞাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ বইমেলার আর আড়াই মাস বাকি। এদিকে বেড়ে গেছে প্রকাশনা সংশ্লিষ্ট উপাদানের দাম। এ নিয়ে লেখক-প্রকাশকরা হতাশা প্রকাশ করছেন। সবকিছুর দাম বেড়ে যাওয়ায় বেড়ে যাবে বইয়ের দামও। সে ক্ষেত্রে পাঠক হারানোর ভয় পাচ্ছেন তারা। ফলে কয়েকজন প্রকাশক ও লেখক নতুন বই প্রকাশ না করার ঘোষণা দিয়েছেন।

জানা যায়, কিছুদিন আগেও ৫৫ গ্রাম ডাবল ডিমাই সাইজের এক রিম কাগজের দাম ছিল ১৪০০-১৫০০ টাকা। বর্তমানে এ কাগজ বিক্রি হচ্ছে প্রায় ২৪০০ টাকা দরে। একই সাইজের ১৮০০ টাকার ৬৫ গ্রাম কাগজ বিক্রি হচ্ছে ২৮০০ টাকা দরে। ২০০০ টাকার ৭০ গ্রাম কাগজ বিক্রি হচ্ছে ৩ হাজার টাকা দরে। ২২০০ টাকার ৮০ গ্রাম কাগজ বিক্রি হচ্ছে ৩৫০০ টাকা দরে। ১০০ গ্রামের রিয়েল আর্ট পেপার ১ রিম বিক্রি হচ্ছে প্রায় ৫০০০ টাকা দরে। ফলে প্রতিনিয়ত দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় হতাশ হয়ে পড়েছেন লেখক-প্রকাশকরা।

এ ছাড়া মুদ্রণ খরচ, বাইন্ডিং ব্যয়, অফিস ভাড়া, কর্মচারীর বেতন, পরিবহণ খরচ মিলিয়ে অন্যান্য সামগ্রীর খরচও বাড়ছে। যে কারণে বইয়ের দাম আগের চেয়ে দ্বিগুণ হওয়ার সম্ভাবনা আছে। তাই পাঠক দ্বিগুণ দামে বই কিনবেন কি না, তা নিয়েও সংশয় রয়েছে। খরচ বাড়তে পারে বইমেলার স্টল ও পরিবহণ খাতে। সে হিসেবে স্টল না নেওয়ার সিদ্ধান্তও আসতে পারে।

বই প্রকাশ প্রসঙ্গে লেখক কিঙ্কর আহসান বলেন, ‘এবারের বইমেলায় আমার ‘খুশবু’ নামের দীর্ঘ উপন্যাসটি প্রকাশ না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। কাগজের দাম বেড়ে যাওয়া নিয়ে চিন্তিত প্রকাশক, লেখক, পাঠকরা৷ প্রতিবাদ জানিয়ে অনেকগুলো প্রকাশনী এবার নতুন বই প্রকাশ না করার সিদ্বান্ত নিয়েছে৷ তাদের প্রতিবাদে শামিল হলাম। তবে মেলায় পুরোনো বইগুলো থাকবে। সম্ভব হলে হিজলতলি বা রংমশাল নামের যে কোনো একটি ছোট বই নিয়ে পাশে থাকবার চেষ্টা করবো।’

লেখক বাসার তাসাউফ বলেন, ‘২০২৩ বইমেলায় পাঁচের অধিক বই প্রকাশ হওয়ার কথা থাকলেও প্রকাশদের আর্থিক সংকটের কথা বিবেচনা করে আমি বই প্রকাশের সংখ্যা কমাতে বাধ্য হলাম। তবে একটা উপন্যাস, একটি শিশুতোষ এবং একটি প্রবন্ধের বই প্রকাশের পরিকল্পনা এখনও আছে। তবে তা-ও প্রকাশকদের সদয় মর্জি থাকলে।’

বিজ্ঞাপন

লেখকদের পাশাপাশি আগামী বইমেলায় নতুন বই প্রকাশ নিয়ে দ্বিধায় পড়েছেন প্রকাশকরাও। তারা টাকা লগ্নি করতে ভয় পাচ্ছেন। অনন্যা প্রকাশনীর স্বত্বাধিকারী মনিরুল হক গত শনিবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নতুন বই প্রকাশ না করার ঘোষণা দিয়েছেন। তিনি লিখেছেন, ‘কাগজের অত্যধিক মূল্য বৃদ্ধির কারণে অনন্যা এবারের মেলায় নতুন কোনো বই প্রকাশ করতে পারছে না। এ জন্য আমরা আন্তরিকভাবে দুঃখিত।’

বিজ্ঞাপন

অন্যদিকে অন্বেষণ প্রকাশনীর মালিক মো. শাহাদাত হোসেনও বলেছেন, ‘যেই বই ছাপাতে ৪০ হাজার টাকা খরচ হতো, এখন তা হবে এক লাখ টাকার ওপরে। বইয়ের মূল্য কীভাবে নির্ধারণ করব আর পাঠকই-বা বই কিনবেন কীভাবে?’

বিজ্ঞাপন

প্রতিবছর নভেম্বর মাস থেকেই বই প্রকাশের তোরজোর শুরু হয়। কিন্তু এবারের চিত্র যেন ব্যতিক্রম। লেখক-প্রকাশকদের এমন অনীহা অমর একুশে বইমেলায় প্রভাব ফেলতে পারে। প্রকাশনা জগতের এমন অশনিসংকেত পাঠকের জন্যও হতাশা বয়ে আনবে।

বিজ্ঞাপন

আরইউ/

বিজ্ঞাপন
আরো দেখুন
বিজ্ঞাপন

সম্পর্কিত খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিজ্ঞাপন
Back to top button