বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কুড়িগ্রামে ভ্যানচালক হত্যার রহস্য উদঘাটন, গ্রেফতার ২

বিজ্ঞাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী উপজেলা আন্ধারিঝাড় ইউনিয়নের ভ্যানচালক রতন মিয়া হত্যার রহস্য উদঘাটন করে হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে আলতাফুর ও আসাদুল হক নামের দু’জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত ১২ সেপ্টেম্বর সোমবার রাতে গলায় রশি প্যাঁচিয়ে ভ্যান চালক রতন মিয়া (২৮)-কে হত্যা করে কোমরে বালু ভর্তি প্লাস্টিকের বস্তা বেঁধে দুধকুমার নদে ফেলে দেয়া হয়। তিন দিন পর শুক্রবার ১৬ সেপ্টেম্বর রতনের লাশ ভেসে ওঠে। রতনের মৃত্যুকে অস্বাভাবিক মনে হলে তাকে হত্যা করা হয়েছে মর্মে শনিবার ১৭ সেপ্টেম্বর রতনের বাবা আমেজ মন্ডল বাদি হয়ে দু’জন সন্দেহভাজনকে আসামি করে ভূরুঙ্গামারী থানায় একটি মামলা করেন।

নিহত রতন মিয়া আন্ধারিঝাড় ইউনিয়নের হেলোডাঙ্গা এলাকার আমেজ মন্ডলের ছেলে। গত শুক্রবার দুধকুমার নদে কোমরে বালু ভর্তি বস্তাবাঁধা অবস্থায় রতনের লাশ পাওয়া যায়।

হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার আলতাফুর ভূরুঙ্গামারী উপজেলার আন্ধারিঝাড় ইউনিয়নের হেলোডাঙ্গা গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে। অপরদিকে আসাদুল হক একই ইউনিয়নের চর বারুইটারী গ্রামের আক্কাস আলীর ছেলে।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত সোমবার ১২ সেপ্টেম্বর রাতে আলতাফুর ও কামরুল সহ কয়েক যুবক স্থানীয় একটি মুদি দোকানের সামনে থেকে রতনকে আন্ধারিঝাড়ের চর বারুইটারী হাফিজিয়া মাদরাসার দিকে ডেকে নিয়ে যায়। তারপর থেকে রতন আর বাড়ি ফেরেননি। শুক্রবার ১৬ সেপ্টেম্বর দুধকুমার নদে রতনের লাশ পাওয়া যায়।

বিজ্ঞাপন

তথ্য প্রযুক্তির সহায়তা নিয়ে ভূরুঙ্গামারী থানা পুলিশ গত রোববার রাতে মামলা দায়েরের এক দিনের মধ্যে চরাঞ্চলে আত্মগোপন থাকা সন্দেহভাজন আলতাফুরকে গ্রেফতার করে এবং তার কাছ থেকে রতনের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন সেট উদ্ধার করে। এছাড়া তার স্বীকারোক্তিতে হত্যাকাণ্ডে জড়িত আরেক সহযোগী আসাদুল হককে গ্রেফতার করে পুলিশ। আসাদুলের কাছে রতন টাকা পেতেন।

বিজ্ঞাপন

ভূরুঙ্গামারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর হোসেন বলেন, মামলা দায়েরের চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যে হত্যাকাণ্ডে জড়িত দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তারা হত্যার দায় স্বীকার করেছে। সোমবার তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

আরইউ/

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন
আরো দেখুন
বিজ্ঞাপন

সম্পর্কিত খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

বিজ্ঞাপন
Back to top button