বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

দুর্গাপুরে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টায় মামলা, অভিযুক্ত গ্রেপ্তার

বিজ্ঞাপন

নেত্রকোনা প্রতিনিধি॥

নেত্রকোনার দুর্গাপুর উপজেলার গাঁওকান্দিয়া ইউনিয়নের দুবরাজপুর গ্রামের পঞ্চম শ্রেনীর এক
ছাত্রী(১১) কে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই ঘটনায় শুক্রবার রাতে ছাত্রীর মা আব্দুর রাজ্জাক (৫৫) কে অভিযুক্ত করে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ এনে থানায় মামলা দায়ের করেন। আব্দুর রাজ্জাক বারহাট্রা উপজেলার চাকুয়া গ্রামের মৃত হাসু শেখের ছেলে। এদিকে, ওই ঘটনায় আব্দুর রাজ্জাককে গ্রেপ্তার করেছে দুর্গাপুর থানা পুলিশ।

মামলার বিবরন থেকে জানা যায়, আব্দুর রাজ্জাক একই এলাকার গনি মাহমুদ সরকার উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন বিল্ডিং নির্মানের মালামাল পাহারাদারের দায়িত্ব পালন করছেন ৬/৭ মাস যাবত। অনুৃমান ২ মাস আগে ছাত্রীর দাদী আব্দুর রাজ্জাকের নিকট গাছের একটি জাম্বুরা বিক্রি করেছিলেন। ছাত্রীর দাদী একটি লোহার শাবল বানাবে তাই জাম্বুরার বিনিময়ে একটি লোহার রড দিবে বলছে আব্দুর রাজ্জাক।

শুক্রবার (৭ জানুয়ারী) সকাল ১০ টায় বিদ্যালয় মাঠের পূর্ব পাশের দোকান থেকে ছাত্রী চানাচুর কিনে নিয়ে যাওয়ার পথে আব্দুর রাজ্জাক তাঁকে ডাক দিয়ে বলে তোমার দাদী লোহার শাবল বানানোর জন্য লোহার রড নিতে বলছে। এ কথা শুনে সে গেলে তাঁকে বিদ্যালয়ের পুরাতন বিল্ডিং এর রুমে নিয়ে গিয়ে তাঁকে জোরপূর্বক ধর্ষণ চেষ্টা চালায়। এ সময় সে চিৎকার করিতে থাকলে আব্দুর রাজ্জাক তাঁকে ছেড়ে দেয়। এরপর সে বাসায় এসে কান্নাকাটি করে বিষয়টি তাঁর পরিবারকে জানায়। পরিবার বিষয়টি স্থানীয় জনপ্রতিনিধিকে অবগত করে। ততক্ষনে স্থানীয় লোকজন বিষয়টি জানতে পেরে আব্দুর রাজ্জাককে মারধর করে সাধারন জখম করে। পরে স্থানীয় মেম্বার ঘটনাস্থলে গিয়ে

লোকজনের হাত থেকে আব্দুল রাজ্জাককে উদ্ধার করে থানা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ গিয়ে তাঁকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসে।

বিজ্ঞাপন

এ ব্যাপারে দুর্গাপুর থানার ওসি শাহনুর এ আলম বলেন, এ বিষয়ে থানায় একটি ধর্ষণ চেষ্টা মামলা হয়েছে। অভিযুক্ত আব্দুর রাজ্জাককে গ্রেপ্তার করে শনিবার আদালতে প্রেরন করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

রাজেশ গৌড়/এআই

বিজ্ঞাপন

 

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন
আরো দেখুন
বিজ্ঞাপন

সম্পর্কিত খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিজ্ঞাপন
Back to top button